ধর্ষণের শিকার মেয়ে শিশুটির বয়স ৫ বছর, ধর্ষক দুই ছেলে শিশুর বয়স ৯ ও ১১ বছর!

“ধর্ষণের শিকার মেয়ে শিশুটির বয়স ৫ বছর, ধর্ষক দুই ছেলে শিশুর বয়স ৯ ও ১১ বছর!”

মোঃ ইমরান হোসেন: হ্যাঁ, কল্পনা নয়। যা লেখা দেখছেন তার পুরোটাই বাস্তব।

ঘটনার সূত্রপাত পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলী ইউনিয়নের হাকিমপুর- জিন্দাপারা এলাকায়। দেবীগঞ্জ থানা সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী শিশুটিকে বাড়িতে একা রেখে তার মা বাড়ির বাইরে যায়। এ অবস্থায় প্রতিবেশী দুই শিশু আকাশ ও মিলন ঘরে প্রবেশ করে জোর পূর্বক মেয়েটিকে ধর্ষণ করে মেঝেতে ফেলে যান।
শিশুটির মা ঘরে ঢুকে মেয়েকে ফ্লোরে পড়ে থাকতে দেখেন। তারপর সে তার মাকে বলেন আকাশ ও মিলন তার সাথে খারাপ কিছু করেছে। পরে রাত্রবেলাতেই শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে পরদিন অর্থাৎ সোমবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ আবু সায়েম বলেন, সোমবার সকালে শিশুটিকে তার পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে ভর্তি করেন। এসময় তারা দাবি করেন মেয়টিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সেই মোতাবেক তাকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করছে। মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে প্রেরণ করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।

দেবীগঞ্জ থানার ওসি রবিউল হাসান সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনায় মিলন নামে এক শীশুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর শিশু আসামিকে গ্রেফতার করার জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।

অপরদিকে এই ঘটনায় পুরো এলাকাবাসী হতবাক হয়ে গেছে। জনমনে নানাবিধ প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। সকলের মনে একটাই প্রশ্ন, যেই বয়সে মেয়েটির পুতুল ও ছেলেগুলোর বল নিয়ে মাঠে থাকার কথা সেইখানে তারা কিভাবে এরূপ একটি হীন অপরাধ জড়িয়ে পড়লো?

সুত্রঃ ফেসবুক ।