মাশরাফির এই সিদ্ধান্তে অটল থাকার বিষয়টি ভালো লেগেছে সৌরভ গাঙ্গুলির

বিশ্বকাপের মূল পর্বের আগে ভারতের বিপক্ষে নিজেদের শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ৯৫ রানের হারের মুখ দেখেছে মাশরাফি বাহিনী। প্রস্তুতি ম্যাচ বলেই ভারতের বিপক্ষে শতভাগ দিয়ে খেলেনি টাইগাররা। মাত্র দিন দুই বাদেই দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু করবে টাইগাররা।

টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং নিয়ে শুরুতে ভারতীয়দের দারুণভাবে চেপে ধরেছিল বাংলাদেশ। মোস্তাফিজুর রহমান, মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেনদের ঠিকমতো পড়তে পারছিলেন না ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু পেস আক্রমণ সরিয়ে স্পিন আক্রমণ আনতেই পরে জেগে উঠে ভারতীয়রা।

আশ্চর্যের ব্যাপার স্পিনাররা সুবিধা করতে না পারলেও পেসারদের আক্রমণে আনেনি বাংলাদেশ। মহেন্দ্র সিং ধোনি, লোকেশ রাহুল সাচ্ছন্দে স্পিন খেললেও স্পিনারদের দিয়েই বোলিং করিয়ে নিয়েছেণ বাংলাদেশ অধিনায়ক।

ম্যাচে বড় ব্যবধানে হারের পর মাশরাফি বিন মর্তুজা বলেছেন, পরিকল্পনা মতোই এই কাজ করা হয়েছে। প্রস্তুতি ম্যাচে সবাইকে সুযোগ করে দিতে এমনটা করা হয়েছে। আর চাপের মুখে যেন ভালো করা যায় তার অনুশীলনের জন্য ধোনি-রাহুলদের সামনে স্পিনাদের ফেলেছিলেন তিনি। ভারত বড় রানের দিকে এগিয়ে গেলেও এই কারণেই পেস আক্রমণকে ব্যবহার করেননি মাশরাফি!

এদিকে, মাশরাফির এই সিদ্ধান্তে অটল থাকার বিষয়টি ভালো লেগেছে ভারতের অন্যতম সফল অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির। বড় ম্যাচের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে বাংলাদেশ এই পন্থা অবলম্বন করেছে মত সৌরভের।

কলকাতা মহারাজ বলেছেন, ‘এটা একটা প্রস্তুতি ম্যাচ। তারা (বাংলাদেশ) বিভিন্ন কম্বিনেশন পরীক্ষা করেছে। বড় ম্যাচের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে সামর্থ্য বিচার করার জন্য এটা দরকার ছিল।’

ম্যাচ পর্যালোচনায় দাদা বলেছেন, ‘বাংলাদেশ অনেক বেশি রান দিয়েছে সত্যি। দুই দলের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে তাদের স্পিনাররা উইকেট পাননি আর ভারতের স্পিনাররা পেয়েছে। তাদের বোলিং ইনিংসের সবচেয়ে বড় সুবিধা ছিল নতুন বলে তারা দারুণ করেছে। প্রথমে তারা ভারতের চার উইকেট তুলে নিলেও পরবর্তীতে আর পারেনি।’